আমরা লাইভে English সোমবার, জানুয়ারি ১৭, ২০২২

যুক্তরাষ্ট্র থেকে ৩০টি অস্ত্রবাহী ড্রোন কেনার পরিকল্পনা ভারতের

Screenshot 2021-03-11 082834

চীন ও পাকিস্তানের সঙ্গে উত্তেজনা বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে ৩০টি অস্ত্রবাহী ড্রোন কেনার পরিকল্পনা করছে ভারত। এর মাধ্যমে তারা সমুদ্র ও স্থল নিরাপত্তা বৃদ্ধি করতে চায়। এ বিষয়ে জানেন এমন কর্মকর্তাদের উদ্ধৃত করে এ খবর দিয়েছে ব্লুমবার্গ। সেই খবর প্রকাশ করেছে ভারতের অনলাইন এনডিটিভি। নাম প্রকাশ না করে ওই কর্মকর্তারা বলেছেন, সান ডিয়েগো ভিত্তিক জেনারেল এটমিকের তৈরি ৩০টি এমকিউ-৯বি প্রিডেটর ড্রোন কিনতে ৩০০ কোটি ডলার আগামী মাসে অনুমোদন করবে ভারত। এই চুক্তির ফলে ভারতের সামরিক বাহিনীর সক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে। তবে ড্রোন ব্যবহার করা হবে শুধু নজরদারি এবং অনুসন্ধানে। রিপোর্টে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, ভারত মহাসাগর এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার কিছু এলাকায় প্রভাব বিস্তার করছে চীন।

সেই প্রভাবের জবাব দিতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কৌশলগত প্রতিরক্ষা অংশীদারিত্ব গড়ে তুলছে ভারত। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকার তার ১০ বছরের ক্ষমতায় সেনাবাহিনীকে আধুনিকায়ন করতে ব্যয় করেছে ২৫,০০০ কোটি ডলার। এ বিষয়ে মন্তব্যের জন্য যোগাযোগ করা হলে ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এবং জেনারেল এটমিকসের কোনো মুখপাত্রের জবাব পাওয়া যায়নি। জবাব পাওয়া যায়নি পেন্টাগন থেকেও। তবে স্থানীয় মিডিয়ার খবর অনুযায়ী, এ মাসেই ভারত সফরে আসার কথা যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিনের। অন্যদকে কোয়াডের বৈঠকে প্রথমবারের মতো ভারত, জাপান ও অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে যোগ দেবেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এসব দেশের প্রেসিডেন্টরা আগামী ১২ই মার্চ ভার্চ্যুয়াল বৈঠকে মিলিত হবেন। এসব তথ্য প্রকাশিত হয়েছে ভারত সরকারের ওয়েবসাইটে। এ সময়ে নেতারা সরবরাহ চেইন, নৌসীমানার নিরাপত্তা ও জলবায়ুর পরিবর্তন সহ বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা করবেন।

যুক্তরাষ্ট্রের এমকিউ-৯বি ড্রোন উড়তে পারে প্রায় ৪৮ ঘন্টা বা দুই দিন দুই রাত। বহন করতে পারে প্রায় ১৭০০ কিলোগ্রাম। ভারতের নৌবাহিনীকে দক্ষিণ ভারতীয় মহাসাগরে চীনের যুদ্ধজাহাজের বিষয়ে নজরদারি উন্নত করতে সক্ষম হবে এই ড্রোন। এ ছাড়া হিমালয় অববাহিকায় ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে স্থল সীমান্তের বিরোধপূর্ণ এলাকায় টার্গেট নির্ধারণে সহায়ক হবে। গত বছর চীনের সঙ্গে ভারতের পূর্ণাঙ্গ যুদ্ধাবস্থা সৃষ্টি হয়। এ সময় ভারত দুটি মনুষ্যবিহীন এমকিউ-৯ প্রিডেটর লিজ নিয়েছিল। তবে শেষ পর্যন্ত তা ব্যবহার করা হয়নি।